শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:২৪ পূর্বাহ্ন

কুমারখালীর নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ঘিরে চলছে প্রচারণার

বিশেষ প্রতিনিধি: / ৪৫৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০, ৮:২৮ পূর্বাহ্ন

কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার অন্যতম একটি ইউনিয়ন নন্দলালপুর। ইউনিয়ন জুড়ে রয়েছে দেশের অন্যতম তাঁত শিল্প, কৃষি কর্মক্ষেত্র সহ নানান প্রসিদ্ধ শিল্প। তবে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে চলছে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা। এখন পর্যন্ত প্রচারণায় শীর্ষে আছে নতুনরা, নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে বদ্ধপরিকর সিনিয়র প্রার্থীরা। ইউনিয়ন পরিষদে দীর্ঘদিন রাজত্ব করেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর মনোনীত প্রার্থী নজরুল ইসলাম। বর্তমানে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব আছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নওশের আলী বিশ্বাস। প্রতিবারই বেশ শক্ত অবস্থানে থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন বি এন পির মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ। এছাড়াও সতন্ত্র চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন জিয়াউর রহমান খোকন। তবে এবার আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে কিছুটা ভিন্নতা দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে প্রচারণায় বেশ এগিয়ে আছে নতুন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে যারা মাঠে নেমেছে। সম্প্রতিক লক্ষ করা যায় কুমারখালী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবী(নানা মহলে বিতর্কিত কমিটি) লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো বেশ জোরেশোরেই প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যেই লক্ষ্য করা গেছে ছোট ছোট পথ‌ সমাবেশ সহ মোটরসাইকেল মহড়া দিচ্ছেন। অপরদিকে নতুন প্রার্থী হিসেবে জানান দেওয়ার সাথে সাথেই যেন যুবকদের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন লিটন শেখ। লিটন ছাত্রজীবনে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের ছাত্র মৈত্রীর নেতা ছিলেন। পরবর্তীতে সে স্থানীয় ছাত্রলীগের সঙ্গে ও রাজনীতি করেছেন বলে জানা যায়। তবে ইতিমধ্যেই তিনি চেয়ারম্যান নির্বাচন করবেন এমন জানান দেওয়ার সাথে সাথে যুব সমাজের মাঝে যেন এক আনন্দের আমেজ শুরু হয়ে গেছে। অতি অল্প সময়ে যুবসমাজের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন তার প্রমাণ পাওয়া যায় ফেসবুক টুইটারসহ নানা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। চুলচেরা বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদে সকল প্রার্থীদের চেয়ে প্রচারণায় এখন এগিয়ে আছে সাবেক ছাত্র নেতা লিটন শেখ।

চায়ের দোকান থেকে শুরু করে রাজনীতি অঙ্গনে সর্বোচ্চ স্থানে ও আলোচনার ম্যান হয়ে দাঁড়িয়েছেন সবেমাত্র রাজনীতিতে আসা লিটন শেখ। সিনিয়র রাজনীতিবিদরা মনে করছেন রাজনৈতিক মাঠে যে কোন প্রার্থীর জন্যই নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে লিটন শেখ একটা ফ্যাক্ট হয়ে দাঁড়াবে। তরুণ ও সুশিক্ষিত হওয়ায় তার প্রভাব টা যেন একটু বেশি পড়ছে। অপরদিকে গুঞ্জন আছে” লিটন শেখ আর সাবেক চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান খোকন একই গ্রাম আর ক্লোজ বন্ধু হওয়া তে শেষ পর্যন্ত যে কোন একজন নির্বাচন করতে পারে। তবে কে করবে এটা নিয়ে ধূম্র জালের সৃস্টি হয়েছে। যদিও সাবেক চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান খোকনকে এখনো নির্বাচনী মাঠে সরাসরি দেখা না গেলেও শেষ রাতে ওস্তাদের মার এমন ধারণাও করছে অনেকেই। সাবেক এই চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান খোকন বিশিষ্ট দানবীর আলাউদ্দিন আহমেদ এর আত্মীয় হওয়ায় তার প্রভাবও রয়েছে তুমুল। সরাসরি নির্বাচনী প্রচারণা না করলেও অনেকেই মনে করছেন তিনিও হতে পারেন এবারের প্রার্থী। অপরদিকে নিজের শক্ত অবস্থান ধরে রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান নওশের আলী বিশ্বাস। করোনা কালীন সময়ে তিনি মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। সেই সাথে বিভিন্ন স্থানে ছোট ছোট সভা-সমাবেশ ও পথসভা চালিয়ে যাচ্ছে। অপরদিকে বিএনপির শক্তিমান প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ তিনিও বসে নেই। প্রকাশ্যে না আসলেও ভেতর ভেতরে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানা গেছে।

নন্দলালপুর ইউনিয়ন জুড়ে আবুল কালাম আজাদের ভালো পরিচিতি থাকায় তার জন্য কিছুটা সুবিধা বয়ে আনবে। অন্যদিকে বাংলাদেশ জামায়াত ইসলামের মনোনীত প্রার্থী ও নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক দুই বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের অবস্থান বেশ শক্ত আছে। একটি জরিপে দেখা গেছে নন্দলালপুর ইউনিয়ন জুড়ে জামাত ইসলামের বড় একটি ভোট ব্যাংক রয়েছে। আর এই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে নির্বাচনে বিজয় টা বাগিয়ে নেবার সম্ভাবনাও রয়েছে সাবেক এই ক্লিন ইমেজ খ্যাত চেয়ারম্যান এর সম্পর্কে। বিশেষ করে জনসাধারণের কাছে তার সততার বড় একটি মাপকাঠি প্রমাণ রয়েছে। বিশেষ করে কোন অন্যায় দুর্নীতি তাকে গ্রাস করতে পারেনি বলে মন্তব্য সাধারণ জনগণের। অপরদিকে আওয়ামী লীগের নেতা সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো গতবছর নির্বাচনী প্রচারণা চালালেও শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকতে পারেননি। তবে গুঞ্জন আছে এবছর নৌকার মাঝি সিরাজুল ইসলাম ভুট্টো ও হতে পারেন। আর সেই আশাতেই সারা ইউনিয়ন চোষে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগের এই নেতা। ইতিমধ্যেই বেশ সুনাম ও জনপ্রিয়তা ও কুড়িয়েছে। সব মিলে নির্বাচনী দিন যত এগিয়ে আসছে প্রচার-প্রচারণা ততই বেশি হচ্ছে। আর সাধারন জনগন চাচ্ছেন নতুন কোনো মুখ দেখতে। আর বিষয়টি যদি এমন হয় তাহলে দেখা গেছে লিটন শেখ এদিক থেকে অনেক এগিয়ে আছে। অন্য প্রার্থীরাও নেই পিছিয়ে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর