শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৪৭ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় ৪নং বিট পুলিশিং সেবার উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০, ১০:০৩ অপরাহ্ন

পুলিশই জনতা, জনতাই পুলিশ, মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার,পুলিশ হবে জনতার এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কুষ্টিয়া পৌরসভার ১০,১১ও ১২নং ওয়ার্ডের ৪নং বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। রবিবার বিকেল ৪টায় পূর্ব মিলপাড়া শেখ আব্দুর রশীদ কমিউনিটি সেন্টারে পুলিশের সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার লক্ষে পৌর এলাকার ১০,১১ ও ১২ নং ওয়ার্ড নিয়ে ৪নং বিট পুলিশিং কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল আতিকুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র মতিউর রহমান মজনু, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি তাইজাল আলী খান, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও শেখ আব্দুর রশীদ কমিউনিটি সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা ফজলে করিম খোকা। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, কুষ্টিয়া সদর থানার ওসি (তদন্ত) আকিবুল ইসলাম, ওসি (অপারেশন) তাপস কুমার, বিট অফিসার সাহেব আলী, ১০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা লাভলু, ১১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনিস কোরাইশী, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর রীনা নাসরিন ও সাবেক কাউন্সিলর নিজাম উদ্দিন প্রমুখ। জেলায় প্রথমবারের মতো বিট পুলিশিং ব্যবস্থা পুলিশের সেবাকে জনগণের নিকট পৌঁছে দেওয়া, সেবার কার্যক্রম গতিশীল ও কার্যকর করা এবং পুলিশের সাথে জনগণের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে প্রতিটি থানাকে ইউনিয়ন ভিত্তিক বা পৌর এলাকায় ওয়ার্ড ভিত্তিক এক বা একাধিক ইউনিটে ভাগ করে পরিচালিত হবে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আতিকুল ইসলাম বলেন, মানুষের দৌড় গোড়ায় পুলিশি সেবা পৌঁছে দিতে এই বিট পুলিশিং কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। মানুষের সময়,শ্রম,অর্থ ব্যয় করে থানায় এসে সেবা নিতে হয়। তাই সাধারণ মানুষের কথা ভেবে আইজিপি মহোদয় এই বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রম চালু করেন। বিট পুলিশিং থেকে সহজেই সাধারণ মানুষ সেবা পাবেন। এছাড়া এলাকার মাদক, সন্ত্রাসসহ বিভিন্ন অপরাধ প্রবণতা কমাতে এবং আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম অন্যতম সহায়ক ভূমিকা রাখবে। তিনি আরও বলেন, এই এলাকায় কোন মাদক ও সন্ত্রাস থাকতে পারবে না। অত্র এলাকায় কোন মাদক বিক্রেতা ও সন্ত্রাসী দেখলে তথ্য দিয়ে পুলিশের সহযোগীতা করবেন ও পুলিশ সুপারকে জানাবেন। সরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশ যতো বড় সন্ত্রাসী বা মাদক বিক্রেতা হোক না কেন তাদের ছাড় দেয়া হবে না। পুলিশের পাশাপাশি জনগণের সঙ্গে পুলিশের বিট কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক পুলিশি সেবা দিয়ে যাবে।বিট পুলিশিং কার্যক্রম সফল করার জন্য সকল শ্রেণী পেশার মানুষের প্রতি কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের পক্ষ হতে আহবান তথ্য দিন সেবা নিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর