শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:০২ পূর্বাহ্ন

কুষ্টিয়ার ঐতিহ্যবাহী পরিমল থিয়েটার দখলমুক্ত করতে রাস্তায় সাংস্কৃতি কর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭৫ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০, ১০:০৩ অপরাহ্ন

দেশের শত বছরের পুরাতন ঐতিহ্যবাহি নাট্য সংগঠন কুষ্টিয়ার পরিমল থিয়েটার প্রভাবশালীদের দখলমুক্ত করার দাবিতে রাস্তায় নেমেছে জেলার সাংস্কৃতি কর্মীরা। জমি জালিয়াতি সংক্রান্ত তদন্ত কমিটির সভায়ও সর্বোচ্চ গুরুত্ব পেয়েছে পরিমল থিয়েটারের জমি জালিয়াতির ঘটনা। সাংস্কৃতিক রাজধানী খ্যাত কুষ্টিয়ার পরিমল থিয়েটারকে বাঁচাতে রবিবার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করে বিভিন্ন সংগঠন। মানববন্ধনে ‘পরিমল থিয়েটার’র সদস্যসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা অংশ নেয়। এরআগে ২৩ সেপ্টেম্বর থিয়েটারের প্রায় ২০ কোটি টাকার সম্পত্তি ভুয়া রেজুলেশন তৈরী করে বিক্রি এবং থিয়েটারের ১০তলা বাণিজ্যিক ভবন নির্মানে হরিলুট নিয়ে দৈনিক যুগান্তর তথ্যবহুল সংবাদ প্রকাশ করে। এরপরই নড়েচড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। রোববার বিকাল সাড়ে ৩টায় জেলা প্রশাসকের কক্ষে জেলার জমি জালিয়াতি সংক্রান্ত তদন্ত কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় মোট ১৮টি অভিযোগ আমলে নেয় কমিটির সদস্যরা। তারমধ্যে সর্বোচ্চ গুরুত্ব পেয়েছে পরিমল থিয়েটারের জমি জালিয়াতির ঘটনা। উক্ত সভায় কমিটির তিন সদস্য কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন, পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত ও সরকারি কৌশুলী এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী বলেন, কোন ভাবেই নাট্য সংগঠনের জমি কেউ বিক্রি করতে পারবে না। থিয়েটারের জমি বিক্রয় করতে হলে সাংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিতে হবে। তিনি বলেন, সভায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে পরিমল থিয়েটারের জমি জালিয়াতির ঘটনা। আগামী সভায় এ বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এদিকে দেশের শত বছরের পুরাতন ঐতিহ্যবাহি নাট্য সংগঠন কুষ্টিয়ার পরিমল থিয়েটার প্রভাবশালীদের দখলমুক্ত করতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন জেলার সাংস্কৃতি কর্মীরা। রোববার বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সামনে পরিমল থিয়েটারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমাননের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে অংশ নেন ‘পরিমল থিয়েটার’র সদস্যসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মীরা। এসময় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগ ও পরিমল থিয়েটারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শামছুজ্জামান দুদু, সাবেক যুগ্ন সম্পাদক খাদেমুল ইসলাম প্রমূখ। পরে সাংস্কৃতি কর্মীরা কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও দুদক কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, জেলার শতবর্ষের ঐতিহ্যবাহী এই সাংস্কৃতিক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা এখানে সাংস্কৃতিক চর্চা করে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতি অর্জন করেছেন। অথচ বর্তমানে রাজনৈতিক প্রভাবশালীদের মদদে একটি দুর্বৃত্তচক্র প্রতিষ্ঠানটিকে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে দখল করে সেখানে বহুতল মার্কেট নির্মান করে প্রতিষ্ঠানকে অস্তিত্বহীন করে ফেলেছে। এঘটনার মধ্যদিয়ে কার্যত: শিল্প-সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক চর্চার পথরোধ করে আগ্রাসন চালানো হচ্ছে। অবিলম্বে প্রতিষ্ঠানটিকে দখল ও আগ্রসন মুক্ত করে সংস্কৃতি কর্মীদের শিল্প চর্চার দ্বার খুলে দেয়ার দাবি বক্তাদের। পরিমল থিয়েটারের অজীবন সদস্য গোলাম মহসিন বলেন, একটি প্রভাবশালী চক্রের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে পরিমল থিয়েটার। থিয়েটারের কোন সভা হয় না। সেখানে সংগঠন বলে কিছুই নেই। তিনি বলেন, সদস্যদের কোন কথা সেখানে চলে না। সবই চলছে দুইজনের কথায়। কাউকে না জানিয়ে জমি বিক্রি হয়ে গেছে। বহুতল ভবন নির্মানেও কোটি কোটি টাকা লুটপাট করেছে দুইজন ব্যক্তি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর