রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
দৈনিক হাওয়া ০৭ মার্চ ২০২১ ইং। আতংকে কুষ্টিয়াবাসী পুলিশ পরিচয়ে লাগাতার ছিনতাই দীর্ঘদিনের শৃংখলা ভঙ্গের পরিনতি অভিযোগ স্থানীয়দের কুমারখালীতে আওয়ামীলীগের দু‘গ্রুপের দ্বন্দে কার্যকরী কমিটির সভা পন্ড : পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন-উত্তেজনা ইবির করোনাকালীন প্রণোদনা প্যাকেজে অসমতা ২৭ ঘন্টা পর কুষ্টিয়া- রাজবাড়ী রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক কুষ্টিয়ায় সম্পত্তি দখল নিয়ে দ্বন্দে ভগ্নিপতির মৃত্যুতে ৮ জনকে আসামী করে মামলা একসঙ্গে ৪ প্রেমিক নিয়ে পলায়ন তরুণীর কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় সড়কে ড্রামট্রাক আটকে দিয়ে গ্রামবাসীর প্রতিবাদ স্বাধীনতার চেতনা আজ ভূলুণ্ঠিত : মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর

দৌলতপুরে পিয়ারা চাষে আগ্রহ বেড়েছে কৃষকদের

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০, ১০:০৫ অপরাহ্ন

পিয়ারা ভিটামিন সমৃদ্ধ একটি সুস্বাদু ফল। বছরের সবসময় এই পিয়ারা ফলের চাষ হলেও বর্ষা মৌসুমে এই ফলে পরিপূর্ণ থাকে হাট-বাজার। তাই ক্রেতারা পছন্দের পিয়ারা ফলটি ক্রয় করে বাড়ি নিতে ভুলেন না। পিয়ারা চাষের জন্য কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের মাটি অনুকুল হওয়ায় এখানকার কৃষকদের পিয়ারা চাষে আগ্রহ বেড়েছে। অর্থকরী ফল হওয়ায় স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করছেন তারা। জেলায় প্রায় ২০০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন ধরণের পিয়ারা ফলের চাষ হয়েছে। যার অর্ধেকই দৌলতপুরে। কম খরচে অধিক লাভ হওয়ার পাশাপাশি বছরের সবসময় এই ফলটি মানুষের শরীরের ভিটামিন ও পুষ্টি চাহিদা মিটিয়ে থাকায় বেকার যুবক থেকে শুরু করে কৃষকরাও এই পিয়ারা চাষে ঝুঁকেছেন। আবার কেউ চাকুরীর পাশাপাশি পিয়ারা চাষ করে আর্থিকভাবে হয়েছেন স্বাবলম্বী। দৌলতপুর উপজেলার জয়রামপুর গ্রামের সরকারী চাকুরীজীবী যুবক সামিউর রহমান চাকুরীর পাশাপাশি পিয়ারাফল চাষ করে হয়েছেন আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী। তিনি ১৩ বিঘা জমিতে পেয়ারার বাগান করেছেন। তিনি আরও জমিতে পিয়ারা চাষ সম্প্রসারন করার কথা জানিয়েছেন। আবার বাগান থেকে পিয়ারা ফল সংগ্রহ করে ব্যবসায়ীরাও হচ্ছেন লাভবান। কম পুঁজি বিনিয়োগ করে হাটে বাজারে তা বিক্রয় করে সংসারের স্বচ্ছলতাও ফিরেছে অনেকের। দৌলতপুর উপজেলা বাজারের ফল ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলাম বিভিন্ন ধরনের ফল বিক্রয়ের পাশাপাশি পেয়ারাও বিক্রয় করে থাকে। বর্তমানে তিনি প্রতি কেজি পেয়ারা ৪০ টাকা দরে বিক্রয় করছেন। পিয়ারা চাষে কারিগরি সহায়তার পাশাপাশি পিয়ারার ফলন বৃদ্ধিতে চাষীদের সার্বিক সহায়তার কথা জানিয়েছেন দৌলতপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ কে এম কামরুজ্জামান। ডাক্তারদের পরামর্শ মতে করোনা প্রতিরোধে ও এন্টিবডি তৈরীতে পিয়ারা ফল কার্যকরী। তাই বর্তমান এই দুঃসময়ে পিয়ারা চাষ বৃদ্ধির করে সবার ক্রয় সীমার মধ্যে রাখা জরুরী। এমনটাই মনে করেন এ অঞ্চলের সর্বসাধারণ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.