রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১০:০৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
কুমারখালীতে মাস্ক পরিধান না করায় মোবাইল কোর্টে ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা নাইজেরিয়ায় ধান ক্ষেতে ৪৩ চাষীকে জবাই কুমারখালী গড়াই নদীতে ভাঙ্গন, হুমকির মুখে বাড়িঘর কুষ্টিয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পদ্মা ক্লিনিক সেন্টার সিলগালা পেয়াজ চাষে ব্যাস্ত ইবি এলাকার কৃষকেরা ভালো দামের আসায় কৃষক কুষ্টিয়ার সনো -২ এ ভুল ইনজেকশনে এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ সড়ক দূর্ঘটনায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভেড়ামারা বিজেএম কলেজের অধ্যক্ষ দৈনিক হাওয়া ২৯ নভেম্বর ২০২০ ইং। আলেম-উলামারা এদেশে ঘর জামাই নয় যে কথা বলতে পারবে না;মুফতি আব্দুল হামিদ  কুষ্টিয়ায় এবার দুইশো বিঘা জমিতে চাষ হয়েছে গ্যান্ডারী আখ

ব্রহ্মপুত্রের বাঁধ ভেঙে ২০ গ্রাম প্লাবিত

অনলাইন ডেস্ক / ৭৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ২৭ জুন, ২০২০, ৫:৫১ পূর্বাহ্ন
ব্রহ্মপুত্রের বাঁধ ভেঙে বন্যার পানিতে প্লাবিত গ্রাম (ছবি: সংগৃহীত)

গাইবান্ধার ফুলছড়ি পয়েন্টে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বেড়ে বিপৎসীমার ২২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানির স্রোতে বিভিন্ন পয়েন্টে ভাঙন দেখা দিয়েছে। এতে সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলার ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। 

শনিবার (২৭ জুন) সকালে গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বিপৎসীমা অতিক্রমের ফলে নতুন নতুন গ্রাম প্লাবিত হয়ে বন্যা দেখা দিয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদবেষ্টিত নিম্নাঞ্চল ফুলছড়ি উপজেলার গজারিয়া, খাটিয়ামারী, ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা ও যমুনা নদীবেষ্টিত সাঘাটা উপজেলার হলদিয়া, পালপাড়া, চিনিরপটল, চকপাড়া, পবনতাইড়, থৈকরপাড়া, বাশহাটা, মুন্সিরহাট, গোবিন্দি, নলছিয়াসহ বিভিন্ন গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। 

এছাড়াও সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চণ্ডিপুর, কাপাসিয়া, তারাপুর, বেলকা, হরিপুর ও শ্রীপুর গ্রামে পানি ঢুকতে শুরু করেছে । তিস্তা ও ঘাঘট নদীবেষ্টিত সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। জেলার সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলার ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে ৷

পানির স্রোতে বিভিন্ন পয়েন্টে ভাঙন দেখা দেওয়ায় এলাকার লোকজনের মাঝে বন্যা ও নদী ভাঙন আতঙ্ক বিরাজ করছে। বসতবাড়িতে বন্যার পানি ওঠায় গবাদিপশু নিয়ে অনেকে বিপাকে পড়েছেন। তবে পানিবন্দি পরিবারের সংখ্যা বা তথ্য এখনও জেলা বা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি ৷

ফুলছড়ির উড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহাতাব উদ্দিন জানান, পানি বৃদ্ধির কারণে নিম্নাঞ্চলের বেশ কিছু এলাকার ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে অনেক মানুষ। পানি বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে গত কয়েকদিনের ভাঙনে উড়িয়া ইউনিয়নের উত্তর উড়িয়া ও কাবিলপুর এলাকার ৪৬টি পরিবার নদী ভাঙনের শিকার হয়েছে।

গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান জানান, গাইবান্ধায় ফুলছড়ি পয়েন্টে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি গত ১২ ঘণ্টায় ২০ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপৎসীমার ২২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
২,৯৪৯
৩৭
২,৮৬২
১৩,৪৮৮
সর্বমোট
১৭৮,৪৪৩
২,২৭৫
৮৬,৪০৬
৯০৪,৫৮৪
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.