বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪২ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি: / ১৩১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৩ জুন, ২০২০, ৭:২২ পূর্বাহ্ন

কুষ্টিয়া কুমারখালীর সদকী ইউনিয়নের উত্তর মুলগ্রামে বিয়ের ৭ মাসের মাথায় গৃহবধূকে মেরে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে।

কাজীপাড়া গ্রামের নিহতের পিতা মোঃ রিকু পারভেজ অভিযোগ করে বলেন তার মেয়ে ঈষিতা(১৯) কুমারখালী সরকারী ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণির ২য় বর্ষে পড়াকালীন একই বিভাগের উত্তর মুলগ্রামের গাফ্ফার মোল্লার ছেলে মোঃ রাকিবুল ইসলাম (২০) এর সাথে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এবং ছেলে পক্ষের পিড়াপিড়িতে এক পর্যায়ে তাদেরকে পারিবারিক ভাবে ৭ মাস পূর্বে বিয়ে দেয়া হয়। এবং বিয়ের ১ মাস অতিবাহিত হতে না হতেই তাদের মধ্যে শুরু হয় দাম্পত্য কলহ।

ঘটনার আগের দিন তার মেয়ে তাকে ফোন দিয়ে বলে আমার উপর শশুড় বাড়ির সবাই নির্যাতন করে আমাকে নিয়ে যাও। তার প্রেক্ষিতে পরেরদিন ১৯ জুন শুক্রবার ঈষিতার মা তাকে আনতে গেলে তার শশুড় গাফফার মোল্লা ২/৩ দিন পর নিয়ে যাবে আশ্বাস দিলে তিনি চলে আসেন। ঘটনার দিন ২০ জুন শনিবার সকালের দিকে রাকিবুল ঈষিতাকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে মারপিট করলে সে বাড়িতে চলে আসার উদ্দেশ্য পাথরবাড়িয়া কবরস্থান পর্যন্ত চলে আসলে সেখান থেকে রাকিবুল ও তার ভাই শরিফুল তাকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে গিয়ে হত্যা করে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে।

অপরদিকে রাকিবুলের ভাই শরিফুল ঈষিতাকে মেরে ফেলার বিষয়টি অস্বীকার করে জানায় ঈষিতা ১১ টার দিকে আত্মহত্যা করে সেসময় সে মাঠে কাজ করছিলো বাড়ি থেকে সংবাদ আসলে সে গিয়ে দেখে এলাকার অনেকেই এসে দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করছে এবং ভেতরে গিয়ে দেখা যায় ঈষিতা গলায় ফাঁস লাগিয়ে আড়ার সাথে ঝুলে আছে।

এলাকাবাসী জানান রাকিবুল ও শরিফুল ঘটনার দিন থেকে বাড়িতে না থাকলেও আজ ২২ জুন বাড়িতে ফিরেছে।

এবিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মজিবুর রহমান জানান লাশ পোস্ট মর্টেম করা হয়েছে। রিপোর্ট আসার পর জানা যাবে হত্যা না আত্মহত্যা। তখন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আপাতত ইউডি মামলা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর