শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৪৬ পূর্বাহ্ন

ওসি রুখসানা খানমের সহযোগীতায় পাকা ধান ঘরে তুললেন অসহায় কৃষক

নড়াইল প্রতিনিধি: / ১৫২ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ১০ মে, ২০২০, ৪:০৬ অপরাহ্ন

চারদিকে পাকা সোনালী ধান উকি দিচ্ছে,  করনায় শ্রমিক সংকট থাকায়,  কৃষকের ধান ঘরে তুলতে বিলম্বিত হচ্ছে।গত ৬ মে বুধবার রাতে হয়ে যাওয়া প্রচন্ড ঝড় বৃষ্টিতে মাঠে কৃষকের  ধান লন্ডভন্ড অবস্হায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।টোনা গ্রামের আতিয়ার টোনা ইসলামীয়া আলিম মাদ্রাসার সামনে, তার ৩৩ শতাংশ ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যাওয়া ধান তপ্ত দুপুরে একা একা  কাটছিলেন।নিয়মিত টহলের অংশ হিসাবে নড়াইলের নড়াগাতী থানা পুলিশের টহল গাড়িতে  বড়দিয়া থেকে টোনা হয়ে  নড়াগাতী থানার দিকে যাচ্ছিলেন থানার ওসি রোকসানা খানম। কৃষকের জমির ধানের অবস্হা  ও তার নিরুপায় অাত্নসমর্পন নিজে  দেখে গাড়ি থামালেন ওসি রোখসানা।  কৃষক   আতিয়ারকে ডেকে  তার সাথে কথা বলে জানলেন তার অসহায়ত্বের কথা। গাড়িতে বসেই ফোনে কথা বললেন অত্র গ্রামের নেতৃস্থানীয়  পানিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খন্দকার ইকরামুল ও খাশিয়াল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক খান সেকেন্দার আলীর সাথে। অনুরোধ করলেন  স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ে কৃষক আতিয়ার এর ধান কেটে দেওয়ার জন্য। বর্তমান পরিস্হিতিতে পুলিশ সদস্যের অপ্রতুলতার কথা চিন্তা করে, ধান কাটতে  থানার  প্রতিনিধিত্ব করতে  পুলিশ অফিসার  এস. আই শেখ  মাহবুবুর রহমান,  এস. আই মোঃ আলমিন, পুলিশ সদস্য  বিপ্লব হোসেন, সাদ্দাম হোসেনকে দায়িত্ব দিয়ে গেলেন।গতকাল শুক্রবার থানার প্রতিনিধিদের অংশগ্রহনে সকাল ৯টায়  ২০ সদস্যের   একটি দল কৃষক আতিয়ারের পুরো ধান কেটে দেয়।ধান কাটায় পুলিশের ভূমিকা জানতে চাইলে কৃষক আতিয়ার বলেন ” থানার  গাড়ি থামতে দেখলাম, একজন পুলিশ এসে বললো, ওছি ম্যাডাম ডাকছেন, ম্যাডামের কাছে যেতে ধান কাটতে সমস্যার কথা ম্যাডাম শুনলেন, বললেন দেখি ব্যাবস্হা করছি, চিন্তা করবেন না, দায়িত্ব নিচ্ছি, ধান কাটা হয়ে যাবে। আজ (শুক্রবার)  আমার ধান কাটা হয়ে গেছে, ছেলে মেয়েদের নিয়ে বছরটা ভাল ভাবে চলতে পারব। “পুলিশের এমন ভূমিকায় তিনি অবাক হয়েছেন, তিনি ও তার পরিবার দারুন খুশি বলে জানান।এব্যাপারে ওসি রোখসানা খানম বলেন ” পুলিশ জনগনের বন্ধু, এই স্লোগানের যথার্থতার প্রমান দিতে বাংলাদেশ পুলিশের গর্বিত সদস্য হিসাবে ভূমিকা রেখেছি মাত্র, দোয়া করবেন যেন দেশ ও দেশের মানুষের কল্যানে কাজ করে যেতে চাই”যেখানে পুলিশ মানে অপরাধীর খোজ, পুলিশ মানে আসামীর হাতে হ্যান্ডক্যাপ পরানো, পুলিশ মানে দাঙ্গা রুখতে পাবলিক পেটানো এমন পুলিশি আচারন দেখতে জনগন যখন অভ্যস্ত, পুলিশ সেখানে মানবিক হতে পারে, ওসি রুখসানার খানমে মানবিকতায়  তা প্রতিফলিত হলো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর