রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩৩ পূর্বাহ্ন

খালেদা জিয়ার ১৪তম কারামুক্তি দিবস উপলে নন্দলালপুর বিএনপির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময়

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৩৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৩:২১ অপরাহ্ন

মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে আপসহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া : মেহেদী রুমী

কুমারখালীর নন্দলালপুর ইউনিয়ন বিএনপির মতবিনিময় সভা মধ্যে দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ১৪তম কারামুক্তি দিবস পালন করা হয়েছে। রবিবার সন্ধায় নন্দলালপুর বোর্ড অফিস প্রাঙ্গনে কারামুক্তি দিবস পালন করা হয়। নন্দলালপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি বীরমুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী। বক্তব্য রাখেন, কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক মেজবাউর রহমানা পিন্টু, কুমারখালী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম, বিএনপির নেতা সুজন বিশ্বাস, আব্দুল­াহ আল মামুন, তসলেম উদ্দিন, আলম শেখ, খোরশেদ আলম, রজব আলী, আতিয়ার রহমান, সবুজ, স্বপন, সাদ্দাম, সাগর, শাহিন, যুবায়ের, পারভেজ, শিয়াম, সোহাগ, রাকিব প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্য সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী বলেন, মানুষের অধিকার আদায়ের আন্দোলনে আপসহীন নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ১১ সেপ্টেম্বর কারামুক্তির ১৪তম বার্ষিকী উপলক্ষে আমি তাঁর প্রতি জানাই গভীর শ্রদ্ধা। আমি তাঁর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করি। তিনি বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক, জাতীয় স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব সুরা এবং উন্নয়নের রাজনীতির রূপকার শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে নির্মমভাবে নিহত করার পর ষড়যন্ত্রকারীরা জাতীয়তাবাদী রাজনীতিকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল। কিন্তু জনগণের কেড়ে নেয়া অধিকার পুনরুদ্ধার করার লক্ষে শহীদ জিয়ার জাতীয়তাবাদী ও গণতন্ত্রের রাজনীতির পতাকাকে উড্ডীন করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া রাজনৈতিক মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিলেন। সেই থেকে তিনি এই দেশে সকল অগণতান্ত্রিক দেশবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে অবিরাম লড়াই অব্যাহত রেখেছেন এবং জনগণ তাঁকে আপসহীন নেত্রীর অভিধায় অভিষিক্ত করেছে। জাতীয় স্বার্থ রক্ষার প্রশ্নে বেগম খালেদা জিয়ার অবিচল সংগ্রাম চক্রান্তকারী কোনো শক্তিই তাঁকে পরাভূত করতে পারেনি। দীর্ঘ ৯ বছরের সামরিক শাসন বিরোধী নিরবচ্ছিন্ন আন্দোলনে স্বৈরাচারকে পরাজিত করে তিনি দেশে সাংবিধানিক গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তিনি মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তির জন্য নিরলস পরিশ্রম করে তাঁর শাসনামলে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করেন। জনগন একদিন এই সরকারের পতন ঘটিয়ে বেগম জিয়াকে মুক্ত করবে ইনশাল­াহ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর