রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন

আফগান পরিস্থিতি এখনো ঘোলাটে

ঢাকা অফিস / ২৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : সোমবার, ১৬ আগস্ট, ২০২১, ১১:১৫ অপরাহ্ন

আফগানিস্তানের যুদ্ধ শেষের ঘোষণা দিয়েছে তালেবান। রোববার তাদের হাতে পতন হয় রাজধানী কাবুলের। প্রেসিডেন্ট আশরাফ গণি এদিনই পালিয়ে গিয়েছেন পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র তাজিকিস্তানে। এরপর থেকেই কাবুলের রাস্তাঘাটে তালেবান মিলিশিয়াদের টহল দিতে দেখা যায়। আতঙ্কে কাঁপছে পুরো আফগানিস্তান। থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে প্রধান শহরগুলোতে। আফগানদের দীর্ঘদিনের স্বাভাবিক জীবন থমকে গেছে। দেশ ছাড়ার হিড়িক পড়েছে নাগরিকদের মধ্যে। কিন্তু এখন একমাত্র ওয়ে আউট হচ্ছে কাবুলের হামিদ কারজাই বিমানবন্দর। সোমবার সেখানে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হন দেশ ছেড়ে পালাতে। এ সময় সেখানে সৃষ্টি হয় সিনেমার দৃশ্য। প্রাণভয়ে মানুষ বিমানে ওঠার জন্য ছুটছে। কেউ কেউ বিমানের পাখা, চাকা ধরে কোনোমতে ঝুলে আছেন। মধ্য আকাশ থেকে কেউ বিমান থেকে ছিটকে পড়ছেন। এতে বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি হয়ে অন্তত ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরইমধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ নিজেদের কূটনীতিক ও নাগরিকদের উদ্ধারে বিমান পাঠিয়েছে। সেখানে যেসব বিদেশি সাংবাদিক কাজ করছেন তারা জানিয়েছেন, কাবুল বিমানবন্দর হচ্ছে এখন দেশটির সবথেকে বড় ক্রাইসিস পয়েন্ট। তালেবানরা এখনও বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারেনি। রয়েছে মার্কিন সেনাদের নিয়ন্ত্রণে। তবে কাবুলের বাকি অংশে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা অস্ত্র সমর্পণ করেছে। সব মিলে আফগান পরিস্থিতি এখনও ঘোলাটে। এদিকে আফগানিস্তানে তালেবান সরকার নিয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে চীন ও পাকিস্তান। চীন জানিয়েছে, তারা তালেবানের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সমপর্ক চায়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং সাংবাদিকদের কাছে সোমবার বলেন, নিজেদের ভাগ্য স্বাধীনভাবে বেছে নেয়ার যে অধিকার আফগানদের রয়েছে তাকে সম্মান করে চীন। আমরা আফগানিস্তানের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ ও সহযোগিতাপূর্ণ সমপর্ক তৈরিতে আগ্রহী। অপরদিকে তালেবানের বিজয়কে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে ঐতিহাসিক সম্ভাবনা বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, আফগানিস্তানে রাজনৈতিক একটি সমাধানের জন্য অব্যাহতভাবে সমর্থন দিয়ে যাবে পাকিস্তান। দেশটি আশা করে, আফগানিস্তানের সবপক্ষ অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক সংকট সমাধানে একসঙ্গে কাজ করবে। তালেবান মুখপাত্র মোহাম্মদ নাঈম এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, তালেবান পুরো পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন থাকতে চায় না। তারা দ্রুতই সরকার গঠন করবে এবং সেই সরকারের গঠন প্রক্রিয়াও সপষ্ট করা হবে। একইসঙ্গে বিশ্বের দেশগুলোর সঙ্গে শান্তিপূর্ণ সমপর্ক রাখতে চায় তালেবান- এমন ইচ্ছার কথাও জানিয়েছেন তিনি। সমগ্র আফগান পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। কাবুল বিমানবন্দরে নিহত কমপক্ষে ৫ কাবুল বিমানবন্দরে কমপক্ষে ৫ জন নিহত হয়েছেন। রাজধানী, রাজপ্রাসাদ, ক্ষমতা- সব তালেবানরা দখল করে নেয়ার পর আতঙ্কিত কাবুলবাসী প্রাণপণ ছুটতে থাকেন ওই বিমানবন্দরে। সেখানে জোর করে বিমানে ওঠার চেষ্টা করেন তারা। তাদের সংখ্যা শত শত। এর আগের এক খবরে বলা হয়, ওই বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে আছে মার্কিন সেনারা। তারা এত মানুষের স্র্রোত ও বিশৃঙ্খলা থামাতে ফাঁকা গুলি করেছে। একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেছেন, একটি গাড়িতে করে কমপক্ষে ৫টি মৃতদেহ নিয়ে যেতে দেখেছেন। আরেকজন বলেছেন, এসব মানুষ বন্দুকের গুলিতে, নাকি পদদলিত হয়ে মারা গেছেন তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সরকার কাঠামো সৃষ্টির জন্য সংগঠিত হচ্ছেন তালেবানরা সরকারের কাঠামো সৃষ্টির জন্য তালেবান নেতারা বিভিন্ন প্রদেশে নতুন করে গ্রুপিং করছেন। বিদেশি সব বাহিনীর বিদায় হওয়া পর্যন্ত তারা অপেক্ষা করবেন। এরপরই নতুন সরকারের কাঠামো সৃষ্টি করবেন তালেবানরা। তালেবানের এক নেতা বলেছেন, তাদের যোদ্ধাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বলা হয়েছে, আফগানরা যেন নিত্যদিনের কর্মকাণ্ড স্বাভাবিকভাবে চালাতে পারেন সে ব্যবস্থা করে দিতে। একই সঙ্গে নির্দেশে বলা হয়েছে, এমন কিছু করবেন না, যাতে সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত হয়। তিনি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এক মেসেজে বলেছেন, স্বাভাবিক জীবনযাত্রা উন্নততর হবে এটা আমি এই মুহূর্তে বলতে পারি। বেসামরিক মানুষের থেকে অস্ত্র সংগ্রহ করছে তালেবান কাবুলে বেসামরিক মানুষের কাছ থেকে অস্ত্র সংগ্রহ শুরু করেছে তালেবান। তালেবানের দাবি, মানুষের আর নিজের সুরক্ষা নিজের করার দরকার নেই। বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তালেবানের কর্মকর্তারা বলেন, আমরা বুঝতে পারছি কেন সবাই নিজের কাছে অস্ত্র রেখেছে। তবে এখন তারা নিরাপদ বোধ করতেই পারে। আমরা কোনো নিরপরাধ মানুষের ক্ষতি করবো না। শহরের বাসিন্দা সাদ মোহসেনী একটি মিডিয়া কোমপানির পরিচালক। তিনি বলেন, তালেবান সদস্যরা তার অফিসে এসে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের ব্যবহৃত অস্ত্র নিয়ে প্রশ্ন করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর