শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১১:০৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর জন্মদিনে গুগলের ডুডল প্রকাশ মাস্ক না পরায় কুষ্টিয়ায় ২৭ জনকে জরিমানা কুষ্টিয়ায় করোনায় ১ জনের মৃত্যু দৈনিক হাওয়া ২৭ নভেম্বর ২০২০ ইং। ২৭ ঘণ্টার মধ্যে রাজধানীর তিনটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ড রহস্যজনক: ফখরুল সাংবাদিকদেরই দায়িত্ব নিতে হবে ভুয়া সাংবাদিক শনাক্তর-তথ্যমন্ত্রী মামুনুলদের লেজ কেটে দেয়ার সময় চলে এসেছে: ছাত্রলীগ সভাপতি কুষ্টিয়ায় অপহরণের বারো দিন পর স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার প্রধান আসমী গ্রেফতার কুষ্টিয়া বিআরটিএ অফিস দুর্নীতির আখড়া বাড়ি পাশ হলো ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়ক ৬ লেনে উন্নীত করার প্রকল্প, স্বাভাবিকের থেকে তিনগুণ বেশি বাজেট

চাল আত্মসাৎ, ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবের নামে দুদকে মামলা

Reporter Name / ৮৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২০, ৬:২০ পূর্বাহ্ন

খুলনা অফিস : করোনাভাইরাসে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ ত্রাণের চাল আত্মসাতের ঘটনায় নড়াইলের কালিয়া উপজেলার জয়নগর ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) মামলা হয়েছে।

আসামিরা হলেন, কালিয়া উপজেলার জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও দেবদুন গ্রামের রাইজল হক চৌধুরীর ছেলে মো. আলাউদ্দিন চৌধুরী (৬০) এবং ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ও জয়নগর গ্রামের শেখ আলতাফ হোসেনের ছেলে শেখ মহিদুল ইসলাম (৫৫)।

বৃহস্পতিবার দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল মামলা করেন। ভুয়া মাস্টারোলের মাধ্যমে ২৮০ কেজি ত্রাণের চাল আত্মসাতের অভিযোগে এ মামলা হয়েছে। মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোরের উপ-পরিচালক মো. নাজমুচ্ছায়াদাত।

জানা যায়, করোনাভাইরাসের কারণে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদে তিন মেট্টিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়। ওই চাল বিতরণ করা হয়েছে দাবি করে গত ১২ এপ্রিল দুপুরে কালিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের ত্রাণ শাখায় মাস্টাররোড দাখিল করেন জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন চৌধুরী। কিন্তু উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সৈয়দ মো. আজিম উদ্দিন মৌখিকভাবে অভিযোগ পান ওই চাল বিতরণ না করেই চেয়ারম্যান ও সচিব ভুয়া মাস্টাররোল দাখিল করেছে।

এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সরেজমিনে তদন্ত করেন। তদন্তে চার নম্বর ওয়ার্ডের ২৮ জনের নামে চাল বিতরণ না করে ভুয়া মাস্টাররোল দাখিলের সত্যতা পাওয়া যায়। অর্থাৎ ২৮ নামের বিপরীতে প্রত্যেকের ১০ কেজি হিসেবে ২৮০ কেজি চাল আত্মসাৎ করেছেন।

অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন চৌধুরী বলেন, দলীয় কোন্দলের কারণে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেতৃত্বে তদন্ত সঠিক হয়নি। শুনছি দুদকে মামলা হয়েছে। আশা করি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা বেরিয়ে আসবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
২,৯৪৯
৩৭
২,৮৬২
১৩,৪৮৮
সর্বমোট
১৭৮,৪৪৩
২,২৭৫
৮৬,৪০৬
৯০৪,৫৮৪
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.