শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:২০ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ার চার পৌরসভার ৩টি নৌকা একটিতে মশালের জয়

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫১ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শনিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২১, ৯:৪৮ অপরাহ্ন

সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, জোরপূর্বক ও প্রকাশ্য ভোট

প্রভাব বিস্তার, সংঘাত-সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, জোরপূর্বক ও প্রকাশ্য ভোট দেওয়াহ নানা অনিয়মের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত কুষ্টিয়ার ৪টি পৌরসভার নির্বাচন শেষ হয়েছে। দুপুরে মিরপুরে সতন্ত্র প্রার্থী শেখ আরিফ এর উপর হামলার ঘটনা ঘটে, এছাড়া ৪টি পৌরসভার বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষ প্রার্থীদের অভিযোগ কেন্দ্রে কেন্দ্রে চলেছে পেশিশক্তির মহড়া।

বহু কেন্দ্র থেকে তাদের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। এমন ঘটনা ঘটেছে কাউন্সিলর প্রার্থীদের ক্ষেত্রেও। বিভিন্ন ওয়ার্ডে ক্ষমতাসীন প্রার্থীরা প্রতিদন্দি কাউন্সিলর প্রার্থী এজন্টে সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে কেন্দ্রে যেতে বাধা প্রদান করেছে এমন অভিযোগ করেছে কয়েকজন কাউন্সিলর প্রার্থী। এদিকে শনিবার ভোট শুরুর প্রথম দিকে বিভিন্ন কেন্দ্র ফাকা থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটারদের উপস্থিত বৃদ্ধি পায়। দিন শেষে কুষ্টিয়ার ৪ পৌরসভা নির্বাচনে তিনটিতে নৌকা প্রতিক নিয়ে আওয়ামীলীগ সমর্থিত ও একটিতে মশাল প্রতিক নিয়ে জাসদ সমর্থিত প্রার্থী বিজয়ী হয়। বেসরকারী এই ফলাফলে নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট পৌরসভার রিটানিং কর্মকর্তারা। শনিবার দিনভর ভোট গ্রহণ ও গননা শেষে রাত পৌনে ৯টায় কুষ্টিয়া অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক ও রিটানিং কর্মকতা লুৎফুন নাহার জানান, বেসরকারী ফলাফলে কুষ্টিয়া পৌরসভায় আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আনোয়ার আলী ৬৬হাজার ৫২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রর্থী বশিরুল আলম চাঁদ পেয়েছেন ১৪হাজার ৬শ ১৩ ভোট। মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা লিংকন বিশ^াস জানান, বেসরকারী ফলাফলে আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী হাজী এনামুল হক ১০হাজার ৪শ ৬৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোবাইল প্রতীকে পেয়েছেন ২হাজার ৫শ ১৫ ভোট। ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা সোহেল মারুফ জানান, বেসরকারী ফলাফলে জাসদ সমর্থিত মশাল প্রতীকে প্রার্থী আনোয়ারুল কবির টুটুল পেয়েছেন ৮হাজার ৩ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামী লীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শামীমুল ইসলাম ছানা পেয়েছেন ৫হাজার ৬শ ১ ভোট। কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা রাজিবুল ইসলাম খান জানান, বেসরকারী ফলাফলে কুমারখালী পৌরসভায় আওয়ামীলীগ সমর্থিত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শামসুজ্জামান অরুন পেয়েছেন ১০হাজার ১শ ১০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষ প্রতীক পেয়েছে ২হাজার ৩শ ৮ ভোট। এদিকে হমলার শিকার মিরপুরে সতন্ত্র প্রার্থী শেখ আরিফ বলেন, পরিকল্পিত ভাবে আমার উপর হামলা হয়েছে। তিনি বলেন, সকাল থেকে ক্ষমতাসীনদলের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী যখন দেখেছে জনগনের রায় শেখ আরিফের পক্ষে তখন থেকেই তারা অবৈধ পন্থার আশ্রয় নেয়। তিনি মিরপুর উপজেলা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন। অন্যদিকে কুষ্টিয়া পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী খান এ করিম ওকুল এবং ডিউক ভোটে কারচুপির অভিযোগ এনছেন। প্রার্থীদের অভিযোগ, ভোট কেন্দ্রে তাদের এজেন্টেদের মারধর করে কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কর্মীরা প্রকাশ্যে প্রতীকে সিল মেরেছে। এ সব প্রার্থী প্রহসনের এ নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect. Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.