শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৩৭ অপরাহ্ন

কুষ্টিয়ায় বখাটের মিথ্যা অপবাদে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা!

Reporter Name / ১১৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে
আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২০, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক : আমাদের সমাজে এখনো কিছু মানুষরুপী নরপশু রয়েছে। যারা তাদের লালসা মেটাতে না পেয়ে একজন সৎ মানুষের বিরুদ্ধে নানা মিথ্যা অপপ্রচার চালিতেও দ্বিধা করেনা। এমনই একজন নর পশু কুষ্টিয়া ইবি থানার হরিনারায়নপুর ইউনিয়নের আব্দালপুর পশ্চিম পাড়ার রুহুল আমিন এর বখাটে ছেলে আশিক। তার দেয়া মিথ্যা অপবাধ সহ্য করতে না পেরে আত্নহত্যার পথ বেচে নেয় বৃষ্টি নামের এক স্কুল ছাত্রী। ওই ছাত্রীর পরিবারের বুক ফাটা কান্না শুনবে কে? প্রভাবশালী হওয়ায় একের পর এক কুকর্ম চালিয়ে গেলেও ওই সব নরপশুদের কি বিচার হবে না?

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এলাকার বখাটে আশিক দীর্ঘদিন যাবৎ বৃষ্টিকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বৃষ্টি তার কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় এক পর্যায়ে আশিক তার ছবি তুলে তা ইডিটিং করে নগ্ন ছবিতে পরিণত করে। এবং নাবালিকা বৃষ্টিকে সেই ছবি দেখিয়ে তার বাবা মাকে সেই ছবি দেখানোর হুমকি দিয়ে তার লালসা মেটানোর চেষ্টা করে। কিন্তু বৃষ্টি তাতেও রাজি না হলে তার ব্যবহৃত মোবাইলে আশিক নানা ধরনের হুমকি স্বরূপ মেসেজ দেয়।

এক পর্যায়ে বৃষ্টি বাধ্য হয়ে তার খালাতো ভাই শিমুলকে বিষয়টি জানায় এবং শিমুল হায়না আশিককে এ বিষয়ে সতর্ক করতে গেলে শিমুলকে বেধড়ক মারধর করে আশিক। অাশিকের কুপ্রভাবও অব্যাহত থাকে এবং বৃষ্টি তাতেও রাজি না হলে গত ০২/০৪/২০২০ ইং তারিখে দুপুর ১ঃ৩০ মিনিটে বৃষ্টির বাবা-মা বাড়ির পাশের মাঠে কাজ করতে গেলে অাশিক তাকে কুপ্রস্তাবে রাজি হতে জোরজবস্তি করে। পরে বৃষ্টি চিৎকার-চেঁচামেচির হুমকি দিলে আশিক সেই ছবি তার বাবা-মাকে দেখানোর কথা বলে মাঠের দিকে চলে যায়। তার পরপরই সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী বৃষ্টি (১৫) লজ্জায় বিষ পান করে এবং মাঠে তার বাবা-মার কাছে গিয়ে তার বিষপানের কথা বলে।

তাৎক্ষণিক বৃষ্টির বাবা-মা স্থানীয় হরিনারায়নপুর বাজারের অাল-হীরা ক্লিনিকে তাকে নিয়ে যায়। সেখান থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুষ্টিয়া বৈশাখী ক্লিনিকে পাঠানো হয় । কিন্তু ক্রমেই বৃষ্টির শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গত ১২/০৪/২০২০ ইং তারিখে হতভাগী বৃষ্টির মৃত্যু হয়।

বৃষ্টির বাবা আব্দুল ওহাব তার একই এলাকার প্রভাবশালী রুহুল আমিনের বখাটে আশিকের সামাজিক ক্ষমতার দাপটের কাছে বিচার চাইতেও ভয় পাচ্ছেন বলে জানান। গত ১৩/০৪/২০২০ ইং তারিখে বৃষ্টির দাফন সম্পন্ন করে বিচার চেয়ে আশিক পরিবারের হুমকীতে মেয়েকে হারিয়েও থানা পুলিশের কাছে যেতেও সাহস পাচ্ছেন না তার পরিবার । কিন্তু সত্যিতো সত্যিই। আশিকের লালসা ও কুকীর্তি ক্রমেই প্রমাণসহ বেরিয়ে আসায় তদন্ত সাপেক্ষে ওই বখাটে আশিকের বিচারের দাবিতে এখন ফুসে উঠেছে এলাকাবাস।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
এক ক্লিকে বিভাগের খবর